Shanto lslam

Publicity Secretary

বাংলাদেশে মানবাধিকারের সার্বিক পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক। দেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা খর্ব এবং জিডিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাসহ বিভিন্ন নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ খুবই আশংকাজনক ৷ বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না। ২০২০ সালের প্রথম ছয় মাসে বাংলাদেশে কমপক্ষে ১৫৮টি বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে৷ গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ক্রমাগত কমছে৷ কোভিড-১৯ বিষয়ে সরকারের সমালোচনা করায় ৩৮ জন সাংবাদিক  এবং স্বাস্থ্যখাতে জড়িত পেশাজীবিসহ চার শতাধিক ব্যক্তিকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে আটক করা হয়েছে৷

বাকস্বাধীনতার অভাব, বাংলাদেশে ধর্মীয় মৌলবাদী ও উগ্রবাদীদের অবস্থান আরো সংহত হচ্ছে৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিশ্লেষণে আমরা দেখতে পাই সাম্প্রদায়িকতা বাড়ছে৷” এ সব কিছুই মানবাধিকার লঙ্ঘন। “অধিকার বঞ্চিত মানুষের পাশে” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ‘বিশ্ব মানবাধিকার ভিশন’ সর্বস্তরের মানুষের শান্তি প্রতিষ্ঠাসহ মানবাধিকার উন্নয়ন, বাস্তবায়ন ও সংরক্ষণে নিবেদিত একটি স্বেচ্ছাসেবী ও অরাজনৈতিক সংগঠন । জাতি, ধর্ম, বর্ণ ও সর্বস্তরের মানুষের নিপীড়ন, নির্যাতন বিরোধী অধিকার রক্ষায় আমরা কাজ করে যেতে চাই।

অন্যান্য স্বনামধন্য মানবাধিকার সংস্থার সাথে সমন্বিতভাবে ‘বিশ্ব মানবাধিকার ভিশন’ কাজ করে যাবে সমান্তরালে । আমাদের কাজের পরিধি ছড়িয়ে যাবে সমগ্র বিশ্বময়। সেই আলোকে আগামী দিনের লক্ষ্য, আদর্শ ও উদ্দেশ্য নিয়ে-ই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে আমাদের ‘বিশ্ব মানবাধিকার ভিশন’ ।

নারী-শিশু নির্যাতন, ধর্ষণ ও পাচার প্রতিরোধে সর্বস্তরে সচেতনতা বৃদ্ধিসহ ক্ষতিগ্রস্থ ব্যক্তি বা পরিবারকে আইনী সহায়তা প্রদান; পারিবারিক, দাম্পত্য কলহ নিরোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ ও আইনী সহায়তা প্রদান, শিশু শ্রমের উপর সচেতনতা বৃদ্ধি ও দেশের প্রচলিত আইনের মাধ্যমে প্রতিরোধ গড়ে তোলা; নির্দোষ ব্যক্তিকে আটক, থানা হাজতে নির্যাতন এবং ঘুষ, দুর্নীতি ও চাকুরি-বিধি লংঘনজনিত ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ; নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায় সর্বস্তরের নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করা এবং সকল নাগরিকদের স্বাধীন মতামত ও ভোটাধিকার প্রয়োগে গণতন্ত্রের স্বচ্ছতা বজায়ে কাজ করা; প্রতিটি নাগরিকের স্বাধীনভাবে মত প্রকাশের অধিকার প্রভৃতি বিষয়ে ‘বিশ্ব মানবাধিকার ভিশন’ একযোগে সারা বিশ্বে কাজ করে যাবে।

আমরা মানবতাবাদী কর্মীগণ, সমগ্র বিশ্বে আমাদের কাজের পরিধি কে বৃদ্ধি করে বিশ্ব মানবাধিকারকে আরো বেগবান ও ত্বরান্বিত করবো- এই আমাদের দৃঢ় প্রত্যয় ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.